ঢাকা, শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ৭ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

প্রথমবারের মতো ডীনস্ অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন কুবির ৫১ শিক্ষার্থী

প্রকাশনার সময়: ২২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৩:০৪

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) প্রথম বারের মতো ডীনস্ অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হয়েছেন ৫১ জন কৃতি শিক্ষার্থী। মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয় ডীনস্ অ্যাওয়ার্ড কমিটির আহ্বায়ক ও ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের অধ্যাপক ড. শেখ মকছেদুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন-২০২০ উপলক্ষে ডীনস্ অ্যাওয়ার্ড ঘোষণা করা হয়। করোনা পরিস্থিতির কারণে স্থগিত হওয়া এই সম্মাননা আগামী ২ জানুয়ারি প্রদান করা হবে।

স্নাতক ডিগ্রি ২০০৬-০৭ থেকে ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষ এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি ২০১০-১১ থেকে ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা ডীনস্ অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হয়েছেন। সম্মাননা হিসেবে শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট এবং সনদপত্র প্রদান করা হবে।

স্নাতক আটটি ব্যাচের মনোনীত ১৮ জন শিক্ষার্থী হলেন-গণিত বিভাগের হুমায়রা দিল আফরোজ ও ফারহানা ইয়াসমিন, পরিসংখ্যান বিভাগের উম্মুল খায়ের সুমি ও সোনিয়া আকতার, অর্থনীতি বিভাগের মিস নয়ন তারা ও স্বর্ণা মজুমদার, ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের সংগীতা বসাক, মো. রফিকুল ইসলাম ও শাকিলা ফেরদৌস, একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের অরূপা সরকার ও রাবেয়া জামান, মার্কেটিং বিভাগের নাসরিন আকতার ঝুমুর ও তানজীনা ইয়াসমিন, ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের রিপা আকতার, সিএসই বিভাগের নয়ন বণিক এবং আইসিটি বিভাগের আমেনা বেগম, মো. কামরুল হাসান ও পিন্টু চন্দ্র পাল।

স্নাতকোত্তর ছয়টি ব্যাচের মনোনীত ৩৩ জন শিক্ষার্থী হলেন-গণিত বিভাগের সামিয়া তাহের, খাদিজা বেগম, পারভীন আকতার, হুমায়রা দিল আফরোজ ও মাহিনুর আকতার, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সানজিদা হক ও অন্তরা তাজরীন তৃণা, পরিসংখ্যান বিভাগের কনকন আচার্য, রসায়ন বিভাগের শারমিন আকতার রূপা ও মো. আলাউদ্দিন হোসাইন, অর্থনীতি বিভাগের মো. মাসুদ রানা, মো. সাইফুল ইসলাম, স্বর্ণা মজুমদার ও সায়েদা সুরাইয়া সুলতানা, নৃবিজ্ঞান বিভাগের ইসরাত জাহান লিপা, ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের মো. জাহিদ হাসান, সঙ্গীতা বসাক, মো. রফিকুল ইসলাম ও শাকিলা ফেরদৌস, একাউন্টিং বিভাগের ফাহামিদা হোসাইন, তৃণা সাহা, ফাহিমুল কাদের সিদ্দিকী ও মো. কাউসার খান, মার্কেটিং বিভাগের মো. আওলাদ হোসাইন, নাসরিন আকতার ঝুমুর, খালেদা আকতার, জাহিদুল ইসলাম পাটোয়ারী ও তানজীনা ইয়াসমিন, সিএসই বিভাগের মেশকাত জাহান ও তাপসী গোস্বামী, আইসিটি বিভাগের আমেনা বেগম, নাবিলা মেহজাবিন ও মোহাম্মদ কামরুল হাসান।

রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, এটা সমাবর্তনের সময় দেওয়ার কথা ছিল। সমাবর্তনের প্রোগ্রাম সংক্ষিপ্ত করার জন্য তখন দেওয়া হয়নি। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় এখন দেওয়া হবে। এটা চলমান থাকবে। প্রতি বছর সমাবর্তনের সময় দেওয়া হবে।

নয়া শতাব্দী/এস

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়