ঢাকা, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

লাইভের মধ্যেই কিশোরকে নারী সাংবাদিকের চড়!

প্রকাশনার সময়: ১৩ জুলাই ২০২২, ০৫:৩৫ | আপডেট: ১৩ জুলাই ২০২২, ০৫:৩৯

টিভি চ্যানেলের সরাসরি সম্প্রচার চলছিল। এক নারী সাংবাদিক লাইভ সংবাদ পরিবেশন করছিলেন। সাংবাদিককে ঘিরে জনতার ভিড়। ওই ভিড়ে দাঁড়ানো এক কিশোরকে আচমকা সপাটে চড় মারলেন পাকিস্তানের ওই নারী সাংবাদিক। সম্প্রতি এমনই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ভিডিওটি শুট করা হয় গত ৯ জুলাই ইদের দিনে। ঈদ সংক্রান্ত খবরই পরিবেশন করছিলেন ওই পাক নারী সাংবাদিক।

ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, নারী সাংবাদিককে ঘিরে কৌতূহলী জনতার ভিড়। সাংবাদিক ক্যামেরায় সরাসরি সংবাদ পরিবেশন করছেন। আচমকাই এক কিশোর ক্যামেরার সামনে হাত নেড়ে কিছু বলে দূরে দাঁড়ানো কাউকে। এরপরেই মেজাজ হারিয়ে সপাটে চড় মারেন সাংবাদিক।

নেটিজেনদের একাংশের বক্তব্য, কিশোর নিশ্চয়ই কোনও খারপ ভাষা প্রয়োগ করেছিল। সেকারণেই মেজাজ হারান সাংবাদিক। এবং চড় মারেন। যদিও প্রকৃত কারণ শুরুতে জানা যায়নি। যিনি প্রথমবার পাকিস্তানি নারী সাংবাদিকের ভিডিওটি টুইট করেন, তাকে সকলেই প্রশ্ন করেন, কেন চড় মারল সাংবাদিক? তিনি এই বিষয়ে আলোকপাত করতে পারেননি।

কিশোরকে চড় মারা নিয়ে নেটিজেনরা দু’রকম মতামত দেন। একদল সাংবাদিকের পাশে দাঁড়ালেও, আরেক দল এমন ব্যবহারের নিন্দা করেন। এক ব্যক্তির মন্তব্য, “কারও সন্তানকে এভাবে চড় মারা কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।” যদিও আরেক নেটিজেনের বক্তব্য, “ক্যামেরার পাশে দাঁড়িয়ে কিশোরটি অস্বস্তিকর ব্যবহার করছিল। সেই কারণেই সমস্যা হয়। ”

পরে আসরে নামেন সোশ্যাল মিডিয়ায় যাকে ঘিরে সমর্থন ও অসমর্থনের ঢেউ, সেই নারী সাংবাদিক মাইরা হাসমি।

মাইরার সাফাই, “লাইফ সম্প্রচারের মধ্যেই ভিড়ে দাঁড়ানো একটি পরিবারের সঙ্গে গুন্ডার মতো আচরণ করছিল ওই কিশোরটি। যে বিষয়টি পছন্দ হয়নি আমার। সেই কারণেই চড় মেরে ফেলি।”

যদিও জনপ্রিয় সাংবাদিকের সাফাইয়ে সন্তুষ্ট নন নেটিজেন একাংশ। মাঝখান থেকে বিতর্কিত ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে নেটপাড়ায়।

????????? pic.twitter.com/Vlojdq3bYO

— مومنہ (@ItxMeKarma) July 11, 2022

নয়াশতাব্দী/জেডআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ