ঢাকা | সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮

যেভাবে ডিজেবল হওয়া ফেসবুক আইডি ফিরিয়ে আনবেন

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক

প্রকাশনার সময়

৩০ আগস্ট ২০২১, ১৩:৫১

আপডেট

৩০ আগস্ট ২০২১, ১৪:১০

ফেসবুক ব্যবহার কারিদের জন্য অন্যতম বিড়ম্বনার নাম ফেসবুক ডিসেবলড হয়ে যাওয়া। ফেসবুক সাধারণত যারা তাদের নীতিমালা ভঙ্গ করে তাদের আইডি ডিসেবলড করে দেয়। তবে ফেসবুক কারো আইডি ডিসেবলড করার পূর্বে কয়েকটি ফিচার আগে বন্ধ করে ব্যবহারকারীকে সতর্ক করে। এরপরেও ব্যবহারকারী সতর্ক না হলে এবং একই ভুল বারবার করলে ফেসবুক তার আইডি ডিসেবলড করে দেয়।

ফেসবুক যেসকল ফিচার বন্ধ করে ব্যবহারকারীকে সতর্ক করে

১. একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য পোস্ট করা বন্ধ করে দেওয়া। অর্থাৎ একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত আপনি ফেসবুকে কোন পোস্ট করতে পারবেন না।

২. একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য লাইক দেওয়া বন্ধ করে দেওয়া।

৩. একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত কমেন্টস করা বন্ধ করে দেওয়া। এই সময়ের মধ্যে আপনি কোন পোস্টে কমন্টেস করতে পারবেন না।

৪. এছাড়া ফেসবুক থেকে লাইভ করা, পেজ বুস্ট ব্লক করে দেওয়ার মতো কিছু সাধারণ ফিচার বন্ধ করে দিয়ে থাকে ।

৬. এরপরেও যদি আপনি একই ভুল আবার করেন তাহলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার পুরো আইডির এক্টিভিটি একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বন্ধ করে দিবে। এ সময়ের মধ্যে আপনি কোন পোস্ট, লাইক, কমেন্টস, শেয়ার কিছুই করতে পারবেন না। ফেসবুক সাধরাণত প্রথমে ২৪ ঘন্টা, তারপর ৭২ ঘন্টা, তারপর ১ সপ্তাহের জন্য আইডি বন্ধ করে রাখে। এরপরেও যদি আপনি একই কাজ করেন তাহলে ফেসবুক ১ মাসের জন্য আপনার আইডি ব্লক করে দিবে। তারপরেও আপনি একই কাজ করলে আপনার আহডি ডিসেবলড করে দিবে।

৬. এছাড়াও আপনার আইডি যদি ফেক হয় এবং অথবা আপনার বিরুদ্ধে যদি একাধিক রিপোর্ট করা হয় তাহলে আপনার আইডি বিনা নোটিশেও ডিসেবলড হয়ে যেতে পারে।

যেভাবে ডিজেবল হওয়া ফেসবুক আইডি ফিরিয়ে আনবেন

ফেসবুক হেল্প সেন্টার থেকে খুবই সাধারণ ব্যাসিক কিছু তথ্য দিয়েই আপনি আপনার ডিসেবলড হওয়া ফেসবুক আইডি ফিরিয়ে আনতে পারেন। যারমধ্যে আপনার ফেসবুক ইমেইল এড্রেস বা ফোন নম্বর, পুরো নাম এবং আইডি কার্ড লাগবে। আইডি হতে পারে ন্যাশনাল আইডি কার্ড, পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রভৃতি। আপনার এসব আইডি না থাকলে শক্তিশালী এবং সঠিক অন্যান্য আইডিও তারা রিভিউ করতে পারে।

ফেসবুক যেসব সরকারি আইডি গ্রহণ করে থাকে।

১. জন্ম সনদ

২.পাসপোর্ট

৩.বিবাহের সনদপত্র

৪.অফিসিয়াল নাম পরিবর্তন কাগজপত্র

৫. ড্রাইভিং লাইসেন্স

৬. জাতীয় পরিচয়পত্র

৭. পেনশন কার্ড

৮.গ্রিন কার্ড, আবাসনের অনুমতি বা অভিবাসনের কাগজপত্র

৯.উপজাতি সনাক্তকরণ বা স্থিতি কার্ড

১০.ভোটার আইডি কার্ড

১১.পারিবারিক সার্টিফিকেট

১২.ভিসা

১৩.জাতীয় বয়স কার্ড

১৪.ইমিগ্রেশন রেজিস্ট্রেশন কার্ড

১৫. কর শনাক্তকরণ কার্ড

ফেসবুক যেসব বেসরকারি আইডি গ্রহণ করে থাকে।

১.ব্যাংক বিবৃতি

২.ট্রানজিট কার্ড

৩.ক্রেডিট কার্ড

৪.কর্মসংস্থান যাচাইকরণ কাগজপত্র

৫.লাইব্রেরী কার্ড

৬.ম্যাগাজিন সাবস্ক্রিপশন স্টাব

৭. মেডিকেল সংরক্ষণ

৮. মেম্বারশিপ আইডি (উদা: পেনশন কার্ড, ইউনিয়ন মেম্বারশিপ, ওয়ার্ক আইডি, প্রফেশনাল আইডি)

৯. স্কুল আইডি কার্ড

১০. স্কুলের রেকর্ড

১১. ইউটিলিটি বিল

১২.ইয়ারবুক ফটো (আপনার ইয়ারবুকের পৃষ্ঠার প্রকৃত স্ক্যান বা ছবি)

১৩. কোম্পানির আনুগত্য কার্ড

১৪.পারিবারিক রেজিস্ট্রি

১৫.ধর্মীয় দলিল

১৬.স্বীকৃতি বা পেশাদারদের জন্য নিবন্ধনের প্রশংসাপত্র

১৭.পেশাদার লাইসেন্স কার্ড

১৮.স্বাস্থ্য বীমা

১৯.ঠিকানা প্রমাণ কার্ড

২০. ব্যক্তিগত বা যানবাহন বীমা কার্ড

তবে মনে রাখবেন, ফেসবুক একাউন্ট ডিজেবল হওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে উপরোক্ত ফরমে আবেদন করতে হবে।

আপনার আইডি যদি ডিসেবলড হয়ে থাকে তাহলে রিকোভারির জন্য আবেদন করুন এই লিংকে

নয়া শতাব্দী/জেআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন
x