ঢাকা | শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

ঝাল মিষ্টির স্বাদে আলু

মাজেদা বেগম
প্রকাশনার সময়: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৩৫

আলু পছন্দ করে না, এমন মানুষ কমই আছে। মাছ, মাংস, নিরামিষ সবরকমের খাবারে আলু দেয়া যায়। আলুর তৈরি অনেক সুস্বাদু ঝাল ও মিষ্টি নাস্তা তৈরি করা যায়। আলু দামে সাশ্রয়ী এবং পুষ্টিগুণেও ভরপুর। আলু শর্করা জাতীয় খাবার। যা মানুষের শরীরে শক্তি জোগাতে সহায়তা করে। এবারের ভোজনের আয়োজনে রয়েছে আলু দিয়ে তৈরি আট রকম খাবার। ছবি ও রেসিপি দিয়েছেন-

আলুর পাকোড়া

উপকরণ : আলু ৪টি (মাঝরি আকারের), বেসন আধা কাপ, চালের গুঁড়া ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ৩ টেবিল চামচ, মরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া চা চামচের ৪ ভাগের এক ভাগ, পানি এক কাপের ৪ ভাগের এক ভাগ, লবণ স্বাদমতো, তেল ভাজার জন্য পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে আলু মিহি করে ভাজির মতো কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। তেল বাদে সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে আলু কুচির সঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর প্যানে তেল গরম করে আলুর মিশ্রণ পেঁয়াজুর আকারে লাল করে ভেজে নিতে হবে। এবার সুন্দর করে সাজিয়ে গরম গরম পরিবেশন করতে হবে।

আলু পরোটা

উপকরণ : আলু সেদ্ধ ৫টি, ময়দা ৩ কাপ, জিরার গুঁড়া আধা চা চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, শুকনো মরিচের গুঁড়া আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি আধা চা চামচ, ধনেপাতা কুচি আধা চা চামচ, গরম মসলা আধা চা চামচ, লবণ দেড় চা চামচ ও চিনি দুই চা চামচ করে, একটু পাতি লেবুর রস, ঘি পরিমাণমতো, তেল ১-৪ কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি : ময়দার সঙ্গে লবণ, চিনি ও তেল দিয়ে ভালো করে মেখে নিতে হবে। এবার পরিমাণমতো পানি দিয়ে ময়দা মেখে নিন। এবার ২০-২৫ মিনিট এই মিশ্রণটি ঢেকে রাখুন। তারপর লেচি কেটে নিন।

এদিকে আলু সেদ্ধর সঙ্গে জিরা, ধনে গুঁড়া, মরিচের গুঁড়া, স্বাদমতো লবণ, গরম মসলা, কাঁচামরিচ কুচি, সরু করে কুচানো ধনেপাতা, একটু পাতি লেবুর রস দিয়ে ভালো করে মেখে নিন। এবার প্যানে ঘি দিয়ে আলু মাখা নেড়েচেড়ে নিন।

সামান্য কসৌরি মেথি দিতে পারেন। কিছুক্ষণ পরে নামিয়ে নিন। এবার ময়দার মিশ্রণ থেকে যে লেচি কেটেছেন, তাতে গুঁড়া ময়দা মাখিয়ে দিন। এর মধ্যে সাবধানে আলুর পুর ভরে নিন। প্রথমে মোমোর মতো মুড়ে নিন। তারপর গোল করে বেলে নিন। দেখবেন সুন্দর গোল করে বেলে নিতে পারবেন।

এবার প্যান গরম করে পরোটা ভালো করে ভেজে নিন। সাইড থেকে ঘি ছড়িয়ে হালকা ভেজে নিন। তৈরি হয়ে গেল গরম গরম আলু পরোটা।

উপকরণ : আলু সেদ্ধ ৫টি, ময়দা ৩ কাপ, জিরার গুঁড়া আধা চা চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, শুকনো মরিচের গুঁড়া আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি আধা চা চামচ, ধনেপাতা কুচি আধা চা চামচ, গরম মসলা আধা চা চামচ, লবণ দেড় চা চামচ ও চিনি দুই চা চামচ করে, একটু পাতি লেবুর রস, ঘি পরিমাণমতো, তেল ১-৪ কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি : ময়দার সঙ্গে লবণ, চিনি ও তেল দিয়ে ভালো করে মেখে নিতে হবে। এবার পরিমাণমতো পানি দিয়ে ময়দা মেখে নিন। এবার ২০-২৫ মিনিট এই মিশ্রণটি ঢেকে রাখুন। তারপর লেচি কেটে নিন।

এদিকে আলু সেদ্ধর সঙ্গে জিরা, ধনে গুঁড়া, মরিচের গুঁড়া, স্বাদমতো লবণ, গরম মসলা, কাঁচামরিচ কুচি, সরু করে কুচানো ধনেপাতা, একটু পাতি লেবুর রস দিয়ে ভালো করে মেখে নিন। এবার প্যানে ঘি দিয়ে আলু মাখা নেড়েচেড়ে নিন।

সামান্য কসৌরি মেথি দিতে পারেন। কিছুক্ষণ পরে নামিয়ে নিন। এবার ময়দার মিশ্রণ থেকে যে লেচি কেটেছেন, তাতে গুঁড়া ময়দা মাখিয়ে দিন। এর মধ্যে সাবধানে আলুর পুর ভরে নিন। প্রথমে মোমোর মতো মুড়ে নিন। তারপর গোল করে বেলে নিন। দেখবেন সুন্দর গোল করে বেলে নিতে পারবেন।

এবার প্যান গরম করে পরোটা ভালো করে ভেজে নিন। সাইড থেকে ঘি ছড়িয়ে হালকা ভেজে নিন। তৈরি হয়ে গেল গরম গরম আলু পরোটা।

আলুর হালুয়া

উপকরণ : সিদ্ধ আলু তিনটি, দুধ এক কাপ, ঘি দুই চামচ, এলাচ চারটি, চিনি এক কাপ, বাদাম আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে সিদ্ধ আলু ভালো করে চটকে গরম দুধ দিয়ে আবারো চটকে থকথকে একটা মিশ্রণ তৈরি করুন। এবার একটি প্যানে ঘি গরম করে কয়েকটি এলাচ দিয়ে তারপর আলুর মিশ্রণ ও চিনি দিয়ে নাড়তে থাকুন। গাজরের হালুয়ার মতো হয়ে তেল ছেড়ে দিলে বাদাম ছড়িয়ে দিন। তারপর নামিয়ে তেল মাখা একটি ট্রেতে টুকরো করে কেটে সুন্দর করে পরিবেশন করুন মজাদার স্বাদের আলুর হালুয়া।

আলুর চপ

কিমা তৈরির উপকরণ : মুরগির মাংসের কিমা ২৫০ গ্রাম, পেঁয়াজ ১টি (কুচি), আদা-রসুন বাটা ১ চা চামচ, কাঁচামরিচ ২টি (কুচি), ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, জিরার গুঁড়া আধা চা চামচ, গরম মসলা আধা চা চামচ, তেল ২ টেবিল চামচ, লবণ আধা চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া ১-৪ চা চামচ।

আলুর চপের উপকরণ : সেদ্ধ আলু ৬টি, শুকনা মরিচ ৪টি, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, কাঁচামরিচ ২টি (কুচি), জিরার গুঁড়া আধা চা চামচ, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, চাট মসলা আধা চা চামচ, সরিষার তেল ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।

ব্যাটার তৈরি উপকরণ : বেসন ১ কাপ, চালের আটা ১-৪ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, বেকিং পাউডার আধা চা চামচ, আদা-রসুন গুঁড়া ১ চা চামচ, ঠাণ্ডা পানি পরিমাণমতো, লবণ আধা চা চামচ।

কোটিংয়ের উপকরণ : ডিম ১টি, ব্রেড ক্রাম্ব ১ কাপ

প্রস্তুত প্রণালি : কিমার পুর দেয়া আলুর চপ তৈরির জন্য চুলায় তেল গরম করে পেঁয়াজ ভেজে নিন। পেঁয়াজ নরম হয়ে গেলে আদা-রসুন বাটা, কাঁচামরিচ কুচি ও ধনেপাতা কুচি দিয়ে কয়েক মিনিট ভেজে নিন। মাংসের কিমা দিয়ে দিন প্যানে। ভালো করে মিশিয়ে বাকি সব মসলা দিয়ে দিন। ভালো করে নেড়েচেড়ে ৫ মিনিটের জন্য প্যান ঢেকে দিন। কিমার মিশ্রণ হয়ে গেলে নামিয়ে রাখুন। সেদ্ধ আলু চটকে নিন মিহি করে। শুকনা মরিচ লবণ দিয়ে ডলে পেঁয়াজ বেরেস্তা মেশান। আবারো মেখে কাঁচামরিচ কুচি, ধনেপাতা কুচি, টালা জিরার গুঁড়া, গরম মসলার গুঁড়া, চাট মসলা ও সরিষার তেল দিয়ে একসঙ্গে মেখে আলু ভর্তা মিশিয়ে নিন। এই আলু ভর্তা দিয়েই হবে তিন স্বাদের চপ।

প্রথমে হাতের তালুতে আলু ভর্তার খানিকটা অংশ নিয়ে চপের আকার করে নিন। এগুলো হবে রেগুলার আলুর চপ। এবার কিমা আলুর চপ বানানোর জন্য আলু ভর্তা হাতের তালুতে রেখে ছড়িয়ে নিন। মাঝখানে খানিকটা কিমার মিশ্রণ দিয়ে চারদিক থেকে ঢেকে নিন। এটা লম্বাটে আকৃতির হবে। পছন্দমতো আকার দিয়ে বানাতে পারেন। বেসনের ব্যাটার বানিয়ে নিন। বেসন চেলে বাকি সব শুকনা উপকরণ মিশিয়ে নিন। এরপর আদা-রসুন বাটা ও অল্প অল্প করে পানি মিশিয়ে ব্যাটার তৈরি করে নিন। খুব বেশি ঘন বা পাতলা হবে না ব্যাটার। ১০ মিনিটের জন্য ঢেকে রাখুন।

এর মধ্যে বানিয়ে রাখা দুই ধরনের চপ ভেজে নিন। ডিম ফেটিয়ে নিন। আলুর চপ ব্রেড ক্রাম্বে গড়িয়ে ডিমের মিশ্রণে ডুবিয়ে নিন। দু’বার করে কোট করুন ডিম ও ক্রাম্বে। ভাজার আগে আধা ঘণ্টার জন্য ফ্রিজে রেখে দিন আলুর চপ। তেল গরম করে ভেজে তুলুন আলুর চপ।

এবার আরেক স্বাদের চপ বানানোর জন্য বেসনে কোট করে ভাজুন। এবার সস দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

আলুর রসে ভরা পিঠা

উপকরণ : সিরার জন্য চিনি ২ কাপ, পানি ১.৫ কাপ, এলাচ ২-৩টি। একসঙ্গে সব উপকরণ একটি পাত্রে নিয়ে ৮-১০ মিনিটের মতো জাল করে ঢেকে রাখুন।

পিঠার জন্য সিদ্ধ আলু ১ কাপ, গুঁড়া দুধ ১-২ কাপ, ময়দা ২ টেবিল চামচ, বেকিং পাউডার ১-২ চা চামচ, চিনি ১ টেবিল চামচ, ঘি ২ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একসঙ্গে মেখে নরম আঁঠালো ডো করে নিন। হাতে তেল মেখে ছোট্ট গোল বল বানিয়ে নিন। এবার পিঠা বা সন্দেশ করার ছাচে তেল মেখে তাতে বল রেখে চাপ দিয়ে তুলে নিন। ডুবো তেলে অল্প আঁচে বাদামি করে ভেজে তুলে নিন। এবার সব পিঠা একসঙ্গে সিরায় দিয়ে ৫ মিনিট জাল দিয়ে চুলা থেকে তুলে ঢেকে রেখে দিন আরো ৩-৪ ঘণ্টা। তারপর বাটিতে তুলে সুন্দরভাবে পরিবেশন করুন মজার রসে ভরা আলুর রস পিঠা।

ফিঙ্গার চিপস

উপকরণ : আলু ১ কেজি (বড় সাইজ), হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, তেল ভাজার জন্য, বিট লবণ স্বাদ অনুযায়ী।

প্রস্তুত প্রণালি: আলুগুলোকে ভালোভাবে ধুয়ে কাটার মেশিনে পাতলা পাতলা করে কেটে নিতে হবে। (বঁটি বা চাকু দিয়েও কাটা যেতে পারে)। কাটা আলুগুলো আবার ধুয়ে অল্প পানি, লবণ, হলুদ এবং মরিচ গুঁড়া দিয়ে ভাঁপ দিয়ে নিতে হবে। এরপর ঝুড়িতে ভালোভাবে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। পানি ঝরে গেলে পাতলা এবং পরিষ্কার কাপড় বিছিয়ে রোদে শুকিয়ে নিতে হবে। (এভাবে আলু শুকিয়ে অনেক দিন পর্যন্ত রাখা যায় এবং ইচ্ছেমতো ভেজে খাওয়া যায়)। প্যানে তেল গরম করে ভেজে নিতে হবে। গরম তেলে আলু দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে তুলে নিতে হবে। বৃষ্টির দিনে এই আলু ভাজা খেতে খুবই ভালো লাগে। বাচ্চাদের ফিঙ্গার চিপস খুবই পছন্দের খাবার।

আলুর সিঙ্গাড়া

উপকরণ : আলু ২৫০ গ্রাম, মাংসের কিমা ১৫০ গ্রাম, আদা ২টি (ছোট টুকরো), পাঁচফোড়ন ১ গ্রাম, পেঁয়াজ ৩০ গ্রাম, মরিচ ৩টি, ময়দা ৬০০ গ্রাম, লবণ ১০ গ্রাম, তেল ৫০ মিলিলিটার, পানি ৭০ মিলিলিটার, তেজপাতা কয়েকটি (২-৩টি)।

প্রস্তুত প্রণালি : আলু ছোট করে চার কোনা আকারে কেটে নিতে হয়। এরপর পেঁয়াজ কুচি, আদা, মাংসের কিমা, লবণ ও তেজপাতা সিদ্ধ করে ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে পাঁচফোড়ন দিয়ে আলুসহ ভালোভাবে ভাজতে হবে। আলু পুরোপুরি সিদ্ধ না হলে পানি দিয়ে আরো কিছুক্ষণ ভেজে নিতে হবে। ময়দার সঙ্গে লবণ ও তেল মেখে আধা ঘণ্টা রাখতে হবে। পরে ময়দার কাই ছোট টুকরো করে লুচির আকারে বানিয়ে ছুরি দিয়ে দুই ভাগ করতে হয়। প্রতি ভাগ লুচি পানের খিলির মতো ভাঁজ করে ভেতরে আলু ও মাংসের তরকারি ভরে নিয়ে খোলামুখে পানি লাগিয়ে মুখ বন্ধ করতে হবে। এরপর ডুবো তেলে ভেজে নিলেই মুখরোচক সিঙ্গাড়ার স্বাদ নেয়া যাবে।

আলুর পুরি উপকরণ : আলু ৩০০ গ্রাম, ময়দা ৩০০ গ্রাম, ঘি অথবা ডালডা কিংবা সয়াবিন তেল ১৫ মিলিলিটার, লবণ ৩ গ্রাম।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে আলু সিদ্ধ করে খোসা ছাড়িয়ে ভালোভাবে চটকিয়ে নিতে হয়। এরপর ময়দা, লবণ ও সয়াবিন তেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। এ মিশ্রণের কিছু অংশ নিয়ে বলের মতো করে প্রতিটি কেন্দ্রে চটকানো আলু ঢুকিয়ে দিতে হবে। পরে বলগুলোকে রুটির মতো বেলে চ্যাপ্টা গোলাকার পুরি তৈরি করে ডুবো তেলে ভাজতে হবে। এরপর অতিরিক্ত তেল ঝরিয়ে নিয়ে পরিবেশন করা যাবে।

আলু দিয়ে ডিম ভাজা

উপকরণ : সিদ্ধ আলু পাঁচটি, ডিম তিনটি, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চামচ, পেঁয়াজ কুচি করা দুটি, ধনেপাতা এক টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ এক চা চামচ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালি : সিদ্ধ আলু গোল গোল করে কেটে লবণ মেখে রাখুন। এবার একটি বাটিতে ডিম ফেটে গোলমরিচ গুঁড়া ও লবণ দিন। একটি প্যানে তেল গরম করে তাতে অর্ধেকটা ফেটানো ডিম দিয়ে ওপরে সুন্দর করে কয়েক টুকরো আলু বিছিয়ে তাতে ডিম বাদে একে একে সব উপকরণ ছড়িয়ে দিয়ে চুলার আঁচ কমিয়ে ঢেকে রাখুন কয়েক মিনিট। এবার বাকি অর্ধেক ডিম দিয়ে আবারো ঢেকে দিন। একটু পরে উল্টিয়ে আস্তে আস্তে দু’পাশ ভেজে নামিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন মজাদার স্বাদের আলু দিয়ে ডিম ভাজা।

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন