ঢাকা | শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

ভিন্ন স্বাদের তালের পিঠা

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশনার সময়

২৭ আগস্ট ২০২১, ০০:০০

আপডেট

২৭ আগস্ট ২০২১, ০৫:৪৫

তাল পাকার মৌসুম চলছে। বাজারেও পাওয়া যাচ্ছে পাকা তাল। দেশি এই ফলটি যেমন মিষ্টি তেমনই আছে এর সুঘ্রাণ। তাছাড়া গুণে

ভরা মৌসুমি এই ফলটি অনেকেরই প্রিয়। তালের নানা পিঠা খাওয়ার এখনই সময়। এবার আমাদের ভোজনের আয়োজন

সাজানো হয়েছে তাল দিয়ে তৈরি ব্যতিক্রমী ধরনের পিঠার রেসিপি। ছবি ও রেসিপি দিয়েছেন- মাজেদা আক্তার

তালের ভাপা পিঠা

উপকরণ: আতপ চালের গুঁড়া- দেড় কাপ, পাকা তালের ঘন রস- ১ কাপ, বেকিং পাউডার- ১ চামচ এর একটু কম, নারিকেল কুড়ানো- ১ কাপ, চিনি- ১ কাপ, ডিম- ১টি, লবণ- ১ চিমটি।

প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে চালের গুঁড়া, লবণ, চিনি, বেকিং পাউডার ভালো করে মিশিয়ে নেই। এরপর তালের রস আর ডিম দিয়ে ভালো করে মেশাতে হবে যেন কোনো দানাদানা না থাকে।

মিশ্রণ নেয়ার আগে বাটিতে তেল ব্রাশ করে নিন। এরপর আধা কাপ কোড়ানো নারিকেল দিয়ে মিশিয়ে দিন। খেয়াল রাখবেন, মিশ্রণ যেন বেশি পাতলা না হয়। এবার এই মিশ্রণ একটি বাটিতে নিয়ে ওপরে কিছু নারিকেল কোড়ানো দিয়ে দিন। আপনি চাইলে বড় বাটির পরিবর্তে ছোট ছোট বাটিতেও এভাবে মিশ্রণ দিয়ে পিঠা তৈরি করতে পারেন।

ঘরে স্টিমার থাকলে তাতে পিঠা ভাপে বসাতে পারেন আর না থাকলে একটা বড় পাতিলে পানি নিয়ে বাটিতে বসিয়ে দিন। ৩০ মিনিটের মতো লাগবে তারপর মাঝে মাঝে দেখে নিন পিঠা। হয়ে গেলে একটা টুথপিক দিয়ে দেখে নিন টুথপিক পরিষ্কার এলে পিঠা হয়ে গেছে। ভাপ থেকে নামিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার তালের ভাপা পিঠা।

তালের পাটিসাপটা

উপকরণঃ পিঠার হালুয়ার জন্য- তালের রস জাল দেয়া -১ কাপ, গুঁড়া দুধ- ১/২ কাপ, নারকেল কুরানো- ১/৩ কাপ, চিনি স্বাদমতো, পোলাও চালের গুঁড়া- ২ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ এক সাথে জাল দিয়ে হালুয়ার মতো ঘন হলে একটা পাত্রে ঢেলে ঠান্ডা করে নিতে হবে।

উপকরণ: পিঠার রুটির বেটার এর জন্য- তালের জাল দেয়া রস ১ কাপ, চালের গুঁড়া ১ কাপ, ময়দা- ১/৩ কাপ, ডিম- ১টা, পানি- পরিমাণমতো।

চিনি- বেটার হাল্কা মিষ্টি হয়, (স্বাদ বা পছন্দমতো চিনি দিবেন।)

প্রস্তুত প্রণালি : পানি বাদে এসব এক সাথে মিশিয়ে নেই। এবার বেটার বানাতে যতটুকু পানি দরকার মিলিয়ে একটা পিঠার বেটার বানিয়ে নেই। এবার চুলায় ফ্রাইপেন দিয়ে টিসু পেপার এ অল্প তেল দিয়ে মুছে নিতে হবে। ফ্রাইপ্যানে ১/২ কাপ বেটার দিয়ে ঘুরিয়ে রুটি করে নিতে হবে। রুটি সিদ্ধ হয়ে গেলে হালুয়ার পুর দিয়ে পিঠা মুড়িয়ে পাটিসাপ্টা করে নিব। এভাবে একটা একটা করে সবগুলো পিঠা বানিয়ে নিব। ব্যস, হয়ে গেল ভিন্ন স্বাদের মজাদার তালের পাটিসাপ্টা পিঠা।

তালের পোয়া পিঠা

উপকরণ: তালের কাথ-১ কাপ, চালের গুঁড়া-২ কাপ, ময়দা- ১/২ কাপ, চিনি- ৩/৪ কাপ, লবণ- স্বাদমতো, ভাজার জন্য ‏তেল-পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালি: একটি পাত্রে তালের কাথ, চালের গুড়া, ময়দা, চিনি, দুধ ও লবণ দিয়ে মিশিয়ে অল্প অল্প করে নরমাল তাপমাত্রার পানি দিয়ে পাতলা ব্যাটার তৈরি করে নেই। ব্যাটার খুব বেশি ঘন বা খুব বেশি পাতলা হবে না। ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ৩০

মিনিট রেখে দিতে হবে। ৩০ মিনিট পর হাত বা চামচের সাহায্যে ব্যাটার আবারো একটু বিট করে নিতে হবে। এতে করে ব্যাটার-এ বাবল সৃষ্টি হবে আর পিঠা ভাল ফুলবে।

চুলায় মাঝারি আঁচে তেল গরম করে নিতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে চুলার আচ কমিয়ে লো করে দিন। কিছুটা ব্যাটার নিয়ে তেলে ছেড়ে দিন। কিছুক্ষণ পর ফুলতে শুরু করলে চামচের সাহায্যে হালকা চেপে চেপে দিলে পিঠা পুরোপুরি ফুলে যাবে। এবার উল্টে দিয়ে দুই দিকেই ভালভাবে ভেজে নেই। গাঢ় বাদামি রঙ করে ভাজলে খেতে ভাল লাগে। (যারা কড়া ভাজা পছন্দ করেন)

ভাজা হয়ে গেলে অতিরিক্ত তেল শুষে নেয়ার জন্য নামিয়ে নিয়ে টিস্যুর ওপর রাখুন।

এবার গরম গরম তালের পোয়া বা তেলের পিঠা পরিবেশন করুন।

তালের পুলি পিঠা

উপকরণ: পিঠার জন্য চালের গুঁড়ি ১ কাপ, লবণ আন্দাজমতো, পানি আন্দাজমতো, তালের রস ২-৩ টেবিল চামচ, জর্দা রং আন্দাজমতো, পুরের জন্য দুধ ১ থেকে ২ লিটার, চিনি ৪-৩ কাপ, তালের রস ২ টেবিল চামচ, পোলাও চালের গুঁড়ি ১ টেবিল চামচ, মালাই ১ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : চুলায় পানি বসিয়ে লবণ দিয়ে ১-২ কাপ ময়দা দিয়ে ডো করে নিতে হবে। বাকি অর্ধেক ময়দায় তালের রস ও জর্দা রং দিয়ে ডো করতে হবে। খুব ভালোভাবে মথে রাখতে হবে।

পুর করার জন্য প্রথমে দুধ ও চিনি জ্বাল দিতে হবে। এরপর চালের গুঁড়ি দিয়ে সিদ্ধ হলে তালের রস এবং মালাই দিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে নিতে হবে।

এখন মথে রাখা ডো’কে পুলি পিঠার শেপ করে ভেতরে পুর দিয়ে স্টিম করে পরিবেশন করতে হবে।

তালের বিবিখানা পিঠা

উপকরণ : জ্বাল দেয়া তালের ঘন রস ২ কাপ, চালের গুঁড়া ২ কাপ, ময়দা আধা কাপ, গুঁড়াদুধ ১ কাপ, কুড়ানো নারিকেল ১ কাপ, ঘন তরল দুধ ১ কাপ, চিনি ২ কাপ, ডিম ৪টি, বেকিং পাউডার ২ চা চামচ, এলাচগুঁড়া ১ চা চামচ, তেল ১ কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি : চালের গুঁড়া, ময়দা, গুঁড়াদুধ, এলাচগুঁড়া ও বেকিং পাউডার একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। বড় একটি বাটিতে ডিম ফেটিয়ে তাতে একে একে দুধ, চিনি, তেল দিয়ে আবার ফেটিয়ে নেই। চিনি গলে গেলে তাতে তালের রস মেশাতে হবে। এবার অল্প অল্প করে চালের গুঁড়ার মিশ্রণ খুব ভালোভাবে তালের রসের মিশ্রণে মিশিয়ে নেই। খেয়াল রাখতে হবে, যেন চালের গুঁড়া দানা দানা হয়ে না থাকে।

বেকিং ডিশে তেল ব্রাশ করে শুকনা ময়দা ছিটিয়ে নিয়ে তাতে এই মিশ্রণ ঢেলে দেই। এবার ইলেকট্রিক ওভেন ১৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় প্রিহিট করে নিতে হবে। ওভেনের নিচ থেকে দুই নম্বর তাকে মিশ্রণের ডিশ রাখতে হবে।

প্রথম ৩০ মিনিট ১৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় এবং পরের ৩০ মিনিট ১৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় বেক করে নেই। হয়ে গেলে পুরোপুরি ঠান্ডা করে প্লেটের ওপর উল্টিয়ে বের করে কুড়ানো নারিকেল দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

তালের রসাল পিঠা

উপকরণ: পাকা তাল ১টি, চাল বাটা ২৫০ গ্রাম, নারকেল ১টি (বাটা), কাজু বাদাম ১০০ গ্রাম, কিশমিশ ২৫ গ্রাম, চিনি ২০০ গ্রাম, এলাচি ৪টি (ছোট), সয়াবিন তেল পরিমাণমতো, আখের গুড় ১০০ গ্রাম ও ময়দা ৫০ গ্রাম।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে পানি আর চিনি দিয়ে রস তৈরি করতে হবে এবং রসের মধ্যে এলাচি দিন। তালের ক্বাথ, নারকেল বাটা, চাল বাটা, কাজু বাদাম, কিশমিশ একসঙ্গে ভালো করে মেশাতে হবে। মিশ্রণের মধ্যে ময়দা আর পানি দিয়ে মাখতে হবে। কড়াইতে তেল গরম করে বড়ার মতো ভেজে চিনির রসে ফেলুন। রস থেকে তুলে কাজু বাদাম ও কিশমিশ ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

তালের দুধবড়া

উপকরণ : বড়ার জন্য - জ্বাল দেয়া তালের ঘন রস আধা কাপ, চালের গুঁড়া: দেড় কাপ, চিনি আধা কাপ, গুঁড়াদুধ ১ কাপ, এলাচগুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ সামান্য, তেল ভাজার জন্য প্রয়োজনমতো।

দুধের মিশ্রণের জন্য: তরল দুধ দেড় লিটার, কনডেন্সড মিল্ক আধা টিন, এলাচগুঁড়া সামান্য।

প্রস্তুত প্রণালি : তেল ছাড়া বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে মাখিয়ে আধা ঘণ্টা রেখে দিন। মাঝারি আচে তেল গরম করে আচ কমিয়ে একটা একটা করে বড়া বানিয়ে তেলে ছেড়ে সোনালি করে ভেজে পেপার টাওয়েলের ওপর তুলে রেখে দেই।

দেড় লিটার দুধ জ্বাল করে এক লিটার করে নিতে হবে। এবার এতে কনডেন্সড মিল্ক ও এলাচগুঁড়া মিশিয়ে নেই। ফুটে উঠলে চুলা থেকে নামিয়ে ভেজে রাখা বড়াগুলো গরম দুধের মিশ্রণে ছেড়ে ঢেকে রাখতে হবে। ঠান্ডা হলে পেস্তা বাদাম কুচি দিয়ে সাজিয়ে মজার তালের দুধবড়া পরিবেশন করতে হবে।

চুলায় বানানো তালের কেক

উপকরণ: তালের গাঢ় রস ২ কাপ, ময়দা ২ কাপ, চিনি ২ কাপ, বেকিং পাউডার ১ চা চামচ, গুঁড়া দুধ ১ টেবিল চামচ, ঘি ১ টেবিল চামচ, সয়াবিন তেল ২ টেবিল চামচ, লবণ সামান্য।

প্রস্তুত প্রণালি: তালের রসে চিনি ভালো করে মিশিয়ে করে নিতে হবে। এরপর সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে যেন কোনো দলা না থাকে।

কেক বসানোর পাত্রে তেল ব্রাশ করে দিয়ে মিশ্রণ ঢেলে দিতে হবে। এবার বাটিটি একটু ঝাকুনি দিয়ে সমান করে নেই। ঢাকনা লাগিয়ে চুলায় একদম নিভু নিভু আঁচে বসাতে হবে, এমন আঁচে দিতে হবে যাতে বাটিতে চুলার আগুন স্পর্শ না করে।

১৫-২০ মিনিটে কেক হয়ে যাবে। নামানোর আগে একটি কাঠি দিয়ে চেক করে নামাতে হবে। কাঠিতে যদি কোনো মিশ্রণ লেগে না থাকে তবে কেক হয়ে গেছে।

১ ঘণ্টা পরে ঠা-া হলে কেক বের করে টুকরো করে নিতে হবে। গরম থাকতেই কেটে ফেলতে হবে।

তালের বড়া

উপকরণ: তালের পাল্প ১ কাপ, চালের গুঁড়া ২ কাপ, নারিকেল ৩ টেবিল চামচ (কোড়ানো), চাঁপাকলা ২ টা, গুঁড়া দুধ ২ টেবিল চামচ, বেকিং পাউডার সিকি চা চামচ, পানি পরিমাণমতো, চিনি স্বাদমতো ভাজার জন্য তেল পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি: তাল চিপে রস বের করে একটা পাতলা কাপড়ে রেখে বেঁধে ঝুলিয়ে রাখুন ৫-৬ ঘণ্টা। এবার ভাজার জন্য তেল বাদে অন্য সব উপকরণ একসাথে ভালো করে মেখে আধা ঘণ্টা ঢেকে রাখুন। তারপর কড়াইতে তেল দিয়ে গরম হলে মাখানো মিশ্রণ থেকে বড়ার আকারে ৭-৮ করে দিয়ে ডুবো তেলে সোনালি করে ভেজে নিন। সবগুলো বড়া ভাজা হয়ে গেলে একটি সুন্দর পাত্রে ঢেলে গরম গরম পরিবেশন করুন মজাদার তালের বড়া।

নয়া শতাব্দী/এসইউ

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন
x