ঢাকা | সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮

আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধের আশঙ্কা 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশনার সময়

০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:০৩

কট্টর ইসলামপন্থি তালেবান তিন সপ্তাহেরও বেশি সময় দেশের দখল নেয়ার পর আফগানিস্তান গৃহযুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে সতর্ক করেছেন শীর্ষ এক মার্কিন জেনারেল।

এদিকে পানশিরে প্রতিরোধ বাহিনী ন্যাশনাল রেজিট্যান্স ফ্রন্টের (এনআরএফ) যোদ্ধাদের সঙ্গে তালেবানের তুমুল লড়াই চলার খবর পাওয়া গেছে। এমন পরিস্থিতির মধ্যেই ফক্স টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমন আশঙ্কার কথা জানালেন মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের চেয়ারম্যান মার্ক মিলি। বার্তা সংস্থা এএফপি ও রয়টার্সের পৃথক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে।

গত শনিবার ফক্স টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে জেনারেল মার্ক মিলি এ সতর্কবার্তা জানান। তিনি মনে করেন, আফগানিস্তানের এমন নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির মধ্যেই সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে।

এদিকে তালেবানের নিয়ন্ত্রণের বাইরে থাকা দেশটির একমাত্র প্রদেশ পানশিরের নিয়ন্ত্রণ নিতে এনআরএফ যোদ্ধাদের সঙ্গে তালেবানের ব্যাপক লড়াই চলছে। গতকাল রোববার উত্তরাঞ্চলীয় এ উপত্যকা থেকে প্রতিরোধ যোদ্ধারা জানিয়েছেন, এদিন তারা তালেবানের কয়েকশ’ সদস্যকে আটক করেছে। একই সঙ্গে তালেবানের অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জামও তাদের দখলে এসেছে।

কাবুল দখলের পর এখনো সরকার গঠন করতে না পারা, ক্ষমতা সংহত ও কার্যকর শাসন ব্যবস্থা গড়ে তুলতে তালেবানের সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এই মার্কিন জেনারেল।

তিনি বলেন, আমার সামরিক অভিজ্ঞতা বলে, আফগানিস্তানের চলমান পরিস্থিতিতে একটি গৃহযুদ্ধ শুরু হতে যাচ্ছে। তার মতে, আমি মনে করি সেখানে বড় ধরনের গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার বাস্তবতা বিদ্যমান। আর তা এমন পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যাবে, যেখানে আল কায়েদা বা আইএস কিংবা অন্য সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আবির্ভূত হতে পারে। তিনি আরো বলেন, এক, দুই, তিন বছরের মধ্যে অঞ্চলটিতে সন্ত্রাসবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে।

পানশিরে সহস্রাধিক তালেবান সদস্য আটক! এদিকে কয়েকশ’ তালেবানকে সদস্যকে বন্দি ও পানশির উপত্যকার পারিয়ান অঞ্চলকে মুক্ত করার দাবি জানিয়েছে আহমদ মাসুদের নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট। কয়েক দিন ধরে তালেবানের সঙ্গে চলমান তুমুল লড়াইয়ের মধ্যেই এমন দাবি জানাল ফ্রন্টটি।

ইরানি সংবাদমাধ্যম পার্স টুডের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়, ফ্রন্টের মুখপাত্র ফাহিম দাশতি দাবি করেছেন, এক হাজারেরও বেশি তালেবান সদস্য পিছু হটার সময় অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। এরপর তাদের বন্দি করা হয়। এছাড়াও অনেকে নিহতও হয়েছে। প্রদেশটির পারিয়ান জেলা তালেবানের কাছ থেকে মুক্ত করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, ফ্রন্টের নেতা আহমদ মাসুদ এসব বন্দির সামনে নিজেদের নীতি-অবস্থান তুলে ধরে ভাষণ দেবেন। তবে তালেবানের পক্ষ থেকে এ প্রতিবেদনে লেখা পর্যন্ত এসব দাবির বিষয়ে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

এর আগে তালেবানের মুখপাত্র বেলাল কারিমি বলেছেন, পানশিরের প্রধান শহর বারাজাক এবং রাখা জেলা ছাড়া পুরো প্রদেশ এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে।

অপরদিকে পানশিরে সংঘাত বন্ধে আফগানিস্তানের বিভিন্ন দলের নেতারা অভিযান বন্ধ করে তালেবানকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছেন। দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই এক বার্তায় পানশিরে হামলা বন্ধ করে আলোচনার বসার জন্য তালেবানের প্রতি আহ্বান জানান।

এমন পরিস্থিতিতে ফ্রন্টের নেতা ও স্বঘোষিত তত্ত্বাবধায়ক প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ পানশির উপত্যকায় তালেবানের অভিযানে সৃষ্ট ভয়াবহ মানবিক সংকটে জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

নয়া শতাব্দী/এম

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন
x