ঢাকা | শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

দাদ থেকে মুক্তি মিলবে ৬ উপায়ে

প্রকাশনার সময়: ২০ অক্টোবর ২০২১, ১০:২০ | আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৪৪

দাদ একটি চর্মরোগ। অতি পরিচিত একটি ফাঙ্গাল ইনফেকশন বা সংক্রমণ এটি। শরীরের বিভিন্ন স্থানে যেমন- হাত, পা, পিঠ, পায়ের আঙুল, হাতের আঙুল ও মাথার তালুতেও দাদ হয়।

এটি খুবই সংক্রামক এক ব্যাধি। খুব সহজেই দাদ একজনের থেকে অন্য জনের শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। দাদ হলে ত্বকের উপর গোলাকার দাগের সৃষ্টি হয়। দেখলে মনে হবে ত্বকের উপর আলাদা এক স্তর পড়েছে।

আক্রান্ত স্থানে চুলকানি হয় ও আঁশের মতো উঠতে থাকে। এই সমস্যা সমাধানে অ্যান্টি ফাঙ্গাল ক্রিম ব্যবহারের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। তবে চাইলে ঘরোয়া উপায়েও সারাতে পারেন এই চর্মরোগ। জেনে নিন উপায়-

>>> মধুতে থাকা হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড ও ছত্রাক-নাশক উপাদান ছত্রাকের বৃদ্ধি ঠেকায়। এজন্য একটি তুলায় মধু লাগিয়ে আক্রান্ত স্থানে ব্যবহার করুন। নিয়মিত ব্যবহারে দাদ থেকে মুক্তি পাবেন।

>>> ছত্রাকের সংক্রমণ ঠেকাতে অ্যালোভেরা খুবই উপকারী অ্যালোভেরায় রেজিন থাকে। তা দাদের চুলকানি, যন্ত্রণা ও প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। এজন্য অ্যালোভেরার পাতা থেকে জেল বের করে আক্রান্ত স্থানে ব্যবহার করুন।

>>> রসুন ছত্রাকের ইনফেকশন দূর করতে পারে। এজন্য ১-২ কোয়া রসুন ভালো করে থেঁতলে নিন। এর সঙ্গে ৩ টেবিল চামচ মধু ও ৩ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে দাদে লাগিয়ে ঘণ্টাখানেক রেখে দিন। তারপর গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

>>> তুলসি পাতায় থাকা অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান দাদের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রোধ করে। তুলসি পাতা চুলকানি ও র্যাশ দূর করে।

>>> কাঁচা হলুদের রস আক্রান্ত স্থানে লাগালে দাদের সমস্যা দ্রুত সেরে ওঠে। হলুদের শক্তিশালী অ্যান্টি সেপটিক ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান দাদের সংক্রমণ ছড়িয়ে যাওয়া প্রতিরোধ করে।

>>> জায়ফলে থাকে অ্যান্টি সেপটিক ও অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান। যা দাদ সারায়। এজন্য এর গুঁড়া সামান্য পানিতে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট দাদের উপর লাগান। দেখবেন দাদ সেরে যাবে।

নয়া শতাব্দী/এসএম

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন