ঢাকা, শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩
নির্মাণ-গল্পে নতুনত্ব

‘শান’ হিট না অ্যাভারেজ?

প্রকাশনার সময়: ০৭ মে ২০২২, ০৮:৪২

করোনা মহামারির বিগত দুই বছর ঈদে সিনেমা নিয়ে মাতামাতি ছিল না খুব একটা। সিনেমা হল ছিল বন্ধ, আটকে ছিল নতুন সিনেমার মুক্তি। করোনার সেই আতঙ্কের দিন শেষে এখন পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক। মানুষের জীবনযাত্রার পাশাপাশি চাঞ্চল্য ফিরেছে চলচ্চিত্রাঙ্গনেও। এবারের ঈদুল ফিতরে মুক্তি পেয়েছে ৪টি সিনেমা, তার একটি এম রাহিম পরিচালিত ‘শান’। এতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন সিয়াম আহমেদ ও পূজা চেরী। এছাড়াও আছেন মিশা সওদাগর, তাসকিন রহমান, চম্পা, অরুণা বিশ্বাস, সৈয়দ হাসান ইমাম, নাদের চৌধুরী, ডন, সোহেল খান, আরমান পারভেজ মুরাদ প্রমুখ।

দালালের খপ্পরে পড়ে অবৈধভাবে সমুদ্রপথে ইউরোপ বা অন্যান্য দেশে কাজের আশায় পাড়ি জমানো মানুষজন উদ্ধারের যেসব সংবাদ পাওয়া যায়, সেসবই ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ‘শান’-এ। মূলত সিনেমাটি মানব পাচারকারী চক্রের বিরুদ্ধে পুলিশ ও নৌ বাহিনীর বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ অপারেশনের গল্পে নির্মিত। গল্প লিখেছেন আজাদ খান।

এ সিনেমায় একজন চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা সিয়াম আহমেদ। অপরাধীদের ধরতে জীবন বাজি রেখে যিনি বিভিন্ন অপারেশনে নেতৃত্ব দেন। পূজা চেরী একজন কণ্ঠশিল্পী। যার সঙ্গে পরিচয় থেকে পরিণয় সিয়ামের। তাদের মাঝে হাজির হন তাসকিন। যে চরিত্রের রহস্যে চমকে যেতে পারেন একজন দর্শক। তাসকিনকে কখনো মনে হতে পারে পূজাকে ভালোবাসে এমন একজন, আবার কখনো মনে হবে সে নিতান্তই সহজ-সরল একটি চরিত্র! ফর্মুলা ঘরানার গল্পে নির্মাতা এম রাহিম এ সিনেমায় নতুনত্ব এনেছেন ‘গল্প বলা’ ও প্রযুক্তিগত মুনশিয়ানায়। অভিনেতাদের চরিত্র নির্বাচনেও বুদ্ধিমত্তার ছাপ রেখেছেন তিনি। পর্দায় অভিনয় শিল্পীদের উপস্থিতি সাবলীল।

‘শান’-এর চিত্রায়ন হয়েছে তথাগত অ্যাকশনধর্মী সিনেমার মতোই। যদিও এ সিনেমার লোকেশন দর্শকদের ভুলিয়ে রাখবে সে কথা! দুর্গম পাহাড়ের বনজঙ্গলে পুলিশের বিভিন্ন অভিযান হয়তো মুগ্ধ করবে দর্শককে। রোমান্টিক দৃশ্য দর্শকদের মনে করিয়ে দিবে শাহরুখ-দীপিকার ‘ওম শান্তি ওম’ ছবির কথা। তাসকিনের অ্যাকশন দৃশ্য মনে করিয়ে দিবে ‘শোলে’ সিনেমায় আমজাদ হোসেনের সেই গাব্বার সিং চরিত্রের কথা। প্রায় ২ ঘণ্টা ৩০ মিনিট ব্যাপ্তির এ সিনেমায় গভীর প্রেম ফুটে উঠে সিয়াম আর পূজা চেরীর। যা দর্শককে মনে করিয়ে দিতে পারে ফরাসি নির্মাতা জঁ ককতোর ‘অর্ফিয়াস’ ছবির কথা!

সারাদেশে যদি আগের মতো সিনেমা হল থাকতো, তবে হয়তো ব্যবসাসফল কিংবা হিট ছবির তালিকায় স্থান পেত সিয়াম-পূজার ‘শান’। যাই হোক না কেন, সিনেমাটি দর্শক টানার ক্ষমতা রাখে। যে কারণে মাল্টিপ্লেক্সের শাখাগুলোয় এ সিনেমার অধিকাংশ শো হাউজফুল। এমনকি সিঙ্গেল স্ক্রিনেও সিনেমাটি দেখে তালি দিয়ে ওঠেন দর্শকরা। মন্তব্য করেন, ‘নায়িকা মারা যাওয়াতে খারাপ লাগছে একটু’ কিংবা ‘আমি তো মনে করছি নায়ক কোলকাতার!’

নয়া শতাব্দী/এস

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ