ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ মহররম ১৪৪৪

রাষ্ট্রপতির ছেলের ড্রাইভারকে মারধর, ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশনার সময়: ২৮ জুন ২০২২, ১৪:২৬

তুচ্ছ ঘটনায় রাষ্ট্রপতির ছেলের গাড়ির ড্রাইভারকে আটকে রেখে মারধর করেছেন কৌশিক সরকার সাম্য নামে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের এক কর্মী। পরে ভুক্তভোগী ড্রাইভার নজরুল ইসলাম ওয়ারী থানায় এই ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত কৌশিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেনের কর্মী। তবে অভিযুক্ত ছাত্রলীগের কেউ নয় বলে জানান জবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন।

সোমবার (২৭ সোমবার) ওয়ারী থানায় বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন নজরুল ইসলাম নামে ভুক্তভোগী সেই ড্রাইভার।

তিনি মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এর ছেলে রিয়াদ আহমেদ তুষারের গাড়ির ড্রাইভার বলে জানিয়েছে ওয়ারী থানা পুলিশ।

ওয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কবীর হোসেন হাওলাদার মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সোমবার ওয়ারীর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম হলের কাছে গাড়িতে ড্রাইভার থাকার সময় আসামি সাইড দিতে বলে। পরে তুচ্ছ ঘটনায় ড্রাইভারকে মারধর করা হয়। তারপর তাকে নজরুল ইসলাম হলে ধরে নিয়ে গিয়ে মারধর করা হয়। এছাড়া প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়। এই অভিযোগ করে ড্রাইভার নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। একজনের নাম উল্লেখসহ আরো কয়েকজনকে অজ্ঞাতনামা করে আসামি করা হয়েছে। তবে এ মামলায় এখনো পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। মামলা নং ২৫, ২৭/৪/২২ বলে থানা থেকে জানা যায়।

এছাড়া ঘটনার বিষয়ে ওয়ারী থানার ফাঁড়ির পুলিশের উপ-পরিদর্শক জহির হোসেন বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় ড্রাইভারকে মারধর করা হয়। বাদী খুব ভয় পেয়ে যান। এমনভাবে মারতে থাকে যেন আর বাঁচবেন না বলে আমাদের কাছে ভীতি প্রকাশ করেন। ড্রাইভার মহামান্য রাষ্ট্রপতির ছেলে রিয়াদ আহমেদ তুষারের গাড়ির ড্রাইভার বলে আমাদেরকে জানায়।

জবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন বলেন, কৌশিক সরকার সাম্য নামের ওই ছেলে ছাত্রলীগের কোন কর্মী না। সে গত কয়েকটি কোন প্রোগ্রামে আসেনি। পদ্মা সেতুর উদ্বোধন প্রোগ্রাম, ধানমন্ডি ৩২ এ ফুল দেয়ার প্রোগ্রামসহ কোনো প্রোগ্রামে ছিল না। তবে কোন শিক্ষার্থী যদি আমার সাথে ছবি তুলতে আসে মানা করা যায় না। সে যদি আসামি হয় তাহলে ছাত্রলীগ এর দায়ভার নিবে না।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল বলেন, ঘটনার বিষয়ে ওয়ারী থানা থেকে শুনেছি। গাড়ির ড্রাইভার মহামান্য রাষ্ট্রপতি স্যারের ছেলের ড্রাইভার বলে থানা জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, এরআগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় ২০১৯ সালের ৭ নভেম্বর আসামি কৌশিক সরকার সাম্যকে সাময়িক বহিস্কার করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

নয়া শতাব্দী/জিএস

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ