ঢাকা, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪
রামগঞ্জে দুর্ভোগ চরমে

ক্রমাগত বাড়ছে নিউমোনিয়া-ডেঙ্গু, হাসপাতালে শয্যা সংকট

প্রকাশনার সময়: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:০০

রামগঞ্জে গত কয়েকদিন যাবত নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া ও ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। তাদের মধ্যে ডেঙ্গুর তুলনায় নিউমোনিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা থাকছে কয়েকগুন বেশি। প্রতিদিনই এসব রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন রোগীরা। হঠাৎ করেই ডেঙ্গু ও নিউমোনিয়ার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় অনেকটা দুশ্চিন্তায় পড়েছেন সাধারণ মানুষ। এদিকে হঠাৎ করে রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। হাসপাতালে পর্যাপ্ত পরিমান শয্যা সংখ্যা না থাকায় রোগীদেরকে থাকতে হচ্ছে ফ্লোরে।

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন হাসপাতাল ঘুরে জানা যায়, নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে শতাধিক শিশু বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে। এরই মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি রয়েছে ২১জন। আর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে ৩ জন। এছাড়া ডায়রিয়া আক্রান্ত ৩৭জন। এদিকে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের জন্য ব্যবস্থা করা হয়নি আলাদা কোনো ইউনিট। ফলে সাধারণ রোগীদের সঙ্গেই থাকতে হচ্ছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের।

রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ঘুরে দেখা যায়, প্রতিদিন উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে শত শত শিশু চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভিড় করছে। এদের মধ্যে প্রায় ৬০ জনেরও বেশি শিশু হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে প্রতিদিন নতুন নতুন রোগীর চাপ সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। এ অবস্থায় শিশুদের প্রতি যত্ন নিতে অভিভাবকদের আরও মনযোগী হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন ডাক্তররা।

অন্যদিকে গত কয়েকদিনের টানা বর্ষন এবং গরমের প্রভাবে বেড়েছে শিশুদের নিউমোনিয়া। হাসপাতালে নিউমোনিয়ার ওয়ার্ড না থাকায় মহিলা ওয়ার্ডে রোগীর চাপ বেড়েছে কয়েকগুণ। হাসপাতালে শয্যা সংকট থাকায় রোগীদের চরম কষ্ট পোহাতে হচ্ছে, তবে ডেঙ্গু নিয়ে অনেকটা চিন্তিত রোগীর স্বজনরা। ডেঙ্গু রোগীদের জন্য আলাদা ইউনিট ও উন্নত চিকিৎসা সেবার দাবি করছেন তারা।

রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মো. মানিক হোসেন বলেন, ৫০শয্যা অনুমোদন থাকলেও হাসপাতালে বেড আছে ৩১ টি, তাই অতিরিক্ত বেড না থাকায় ফ্লোরেও রোগীদের সেবা দিতে হচ্ছে।

রামগঞ্জ স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার গুনময় পোদ্দার বলেন, আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে শিশুদের নিউমোনিয়া, ডায়রিয়াসহ নানা রোগ দেখা দিয়েছে। তিনি অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন।

নয়াশতাব্দী/এমএস

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ