ঢাকা, বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ব্যানারে প্রধানমন্ত্রীর ছবি না থাকায় অনুষ্ঠান বয়কট এমপির

প্রকাশনার সময়: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:৫৯

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া অনুষ্ঠানের সকল আয়োজন শেষে চলছিলো অতিথিদের বরণ প্রস্তুতি। সকাল সাড়ে ৯টায় অনুষ্ঠানস্থলে আসলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও নাটোর জেলা আ.লীগের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস। দেখলেন সদ্য সরকারিকরণ হওয়া ওই কলেজের সভাস্থলে মঞ্চের ব্যানারে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি নেই। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে অনুষ্ঠান বয়কট করে চলে গেলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার বিলচলন শহীদ সামসুজ্জোহা সরকারি কলেজে ঘটেছে এমন ঘটনা।

সংসদ সদস্যের চলে যাবার পরপরই কলেজ শাখা, পৌর ও উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদে ভণ্ডুল হয় ওই অনুষ্ঠান।

ওই কলেজের বিদায়ী শিক্ষার্থী, কলেজ শাখা ছাত্রলীগ এবং প্রতিষ্ঠানসুত্রে জানা গেছে বৃহস্পতিবার ২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলো কতৃপক্ষ। ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী এসেছিলেন নতুন সাজে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও শিক্ষা বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস। নাটোর জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ ও পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম বিশেষ অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও তারা আসেননি।

সংসদ সদস্যের পাশাপাশি কলেজ, পৌর ও উপজেলা শাখা ছাত্রলীগও অনুষ্ঠান বয়কট করে তাৎক্ষণিক কলেজ চত্বরে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে। পরে সংবাদ সম্মেলন করে প্রতিবাদ জানান।

সংবাদ সম্মেলনে কলেজ শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি সোহানুর রহমান সজিব জানান, জাতির জনক শেখ মুজিব বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা আর প্রধানমন্ত্রী সদ্য জ্বোহা কলেজটি সরকারিকরণ করেছেন। সেই কলেজের অনুষ্ঠানের ব্যানারে তাদের ছবি থাকবেনা এমন অনুষ্ঠান ছাত্রলীগ হতে দিতে পারে না। এছাড়া স্থানীয় সংসদ সদস্যের অনুদানে কলেজটির সামগ্রিক উন্নয়ন হলেও ব্যানারে তার ছবিওভব্যবহার করা হয়নি। ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শে বিশ্বাসী অধ্যক্ষভএ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তার অবস্থান আবারও পরিস্কার করলেন।

অনুষ্ঠান ভণ্ডুলের পর অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. একরামুল হক তার কক্ষে সাংবাদিক সম্মেলন করে ব্যানারে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি না থাকার কথা স্বীকার করে বলেন, অনুষ্ঠানটি ভুল বোঝাবুঝির কারণে ভণ্ডুল হয়েছে। তবে দ্রুততম সময়ে পুনরায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।

এ বিষয়ে সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস জানান, মঞ্চের ব্যানারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোন ছবি কিংবা জাতীয় শ্লোগান ব্যবহার করা হয়নি। এ কারণে তিনি অনুষ্ঠান বয়কট করেছেন।

নয়াশতাব্দী/এমএস

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ