ঢাকা | শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

আগাম ব্রি ধান-৭৫ চাষে লাভবান চাষিরা

প্রকাশনার সময়: ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৪৯

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় রোপা আমন মৌসুমে আগাম ব্রি ধান ৭৫ জাতের চাষ করা হয়েছে। স্বল্প জীবনকালীন এ ধান চাষ করে লাভবান হচ্ছেন এখানকার চাষিরা। স্বল্প সময়ে এ ধান চাষ করে সময়মতো গড়ে তুলছেন চাষিরা। এখন প্রস্তুতি নিচ্ছেন সরিষার আবাদ করতে। এতে করে আগাম এ ধান চাষে একদিকে যেমন আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছেন পাশাপাশি অন্য জাতের ফসলের আবাদ করার বাড়তি সুযোগ ও সময় পাচ্ছেন।

উপজেলা কৃষি বিভাগ জানায়, রোপা আমন মৌসুমে স্বল্প জীবনকালীন ব্রি ধান ৭৫ চাষ করে কৃষকেরা আনন্দিত। আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে কৃষক পর্যায়ে উন্নত মানের ধান, গম ও পাট বীজ উৎপাদন, সংরক্ষণ ও বিতরণ প্রকল্পের আওতায় কৃষকদের এ বীজ দেওয়া হয়। আগাম ধান কাটতে পেরে কৃষকেরা আনন্দিত এবং বাজার মূল্য বেশ ভালো। বোরো ধান আবাদের পূর্বে সহজেই আরেকটি ফসল সরিষা করতে পারবে। সেজন্য কৃষকেরা প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ব্রি ধান-৭৫ বিঘা প্রতি ১৯-২০মণ ধান পাওয়া যায়। এতে কম সময় ও খরচে কৃষকেরা লাভবান হচ্ছেন।

সরেজমিনে উপজেলার খামা, আদিত্যপাশা, আঙিয়াদীসহ বেশ কয়েকটি গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে, কৃষকেরা আগাম ধান কাটা নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচে্ছন। বেশিরভাগ জমির ধানই কাটা প্রায় শেষ। কেউ কেউ ধান কেটে মাঠেই শুকাতে দিয়েছেন। কেউবা আবার আঁটি বেঁধে বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছেন।

খামা গ্রামের মোস্তফা, বাচ্চু মিয়া, নুরুল ইসলাম জানান, কৃষি বিভাগের পরামর্শে তারা আগাম ব্রি ধান-৭৫ জাতের ধানের আবাদ করেছেন। এতে আমন মৌসুমের আগেই তারা ধান ঘরে তুলতে পেরেছেন। এখন পরবর্তী ফসল চাষাবাদের জন্য জমি উপযোগী করছেন। এ জাতের ধান ১০৮ দিনেই ঘরে তোলা সম্ভব। সময় ও খরচ কম লাগে। ধানের বর্তমান বাজার দর ভালো। ধানের ন্যায্য মূল্য পেয়ে লাভের আশা দেখছেন তারা।

তালদর্শী গ্রামের নুরু মিয়া বলেন, ‘তিন বিঘা জমিতে ব্রি ধান-৭৫ চাষ করেছেন। এতে বিঘা প্রতি ১৮-১৯ মণ ধান পেয়েছেন। রোগবালাইয়ের আক্রমণ কম হওয়ার পাশাপাশি সময় কম লেগেছে। কম সময়ের এ ধান চাষে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার পাশাপাশি অন্য ফসল চাষেও বাড়তি আয় হবে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ও আঙিয়াদী ব্লকের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ হামিমুল হক সোহাগ বলেন, ‘স্বল্প জীবনকালীন ধান আবাদের বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে। তার অন্যতম হলো একটি অতিরিক্ত ফসল চাষের মাধ্যমে শস্যের নিবিড়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আগাম কর্তন করতে পারায় বাজারমূল্যও ভালো পাওয়া যায়।’

নয়া শতাব্দী/জেআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন