ঢাকা | বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

বর্ষার পোষা পাখি ঘুড়ে বেড়ায় মুক্ত আঙ্গিনায়

শামীম আহমেদ, বরিশাল ব্যুরো
প্রকাশনার সময়: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪১

ফার্মাষ্টি চাকরীজীবী হওয়ার পর পাখির ভালোবাসার রসায়ন খুব দ্রুত আয়ত্ব করেছেন বরিশাল নগরীর বাসিন্দা নাবিলা নুর বর্ষা। তাই তিনি মুক্ত করে পাখি পোষেন। নগরীর দক্ষিন আলেকান্দায় নিজের বাসায় রয়েছে রঙ বে-রঙের নানা পাখি। নারী পাখি প্রেমী ফার্মাসিষ্ট বর্ষার পাখি খাঁচায় নয়, নিজের আঙিনায় মুক্তভাবে ঘুরে বেড়ায়। বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ফার্মাসিষ্ট পদে কর্মরত রয়েছেন তিনি।

হাসপাতালের দায়িত্ব পালন শেষে বাসায় ফিরে শুরু করেন পাখিদের যত্ন। নাওয়া-খাওয়া ভুলে পাখি লালন-পালনে ব্যস্থ হয়ে পড়েন। বর্ষার পোষা পাখিদের মধ্যে রয়েছে লাভ বার্ড ও বাজরিগারসহ নানান রং-বেরঙের পাখি। যা দেখলে অনেকে হতবাক হয়ো যায়।

পাখি পোষার বিষয় নিয়ে নাবিলা নুর বর্ষা বলেন, ভালো চাকুরী ও ভালো বেতন ছেড়ে দিয়ে শুধুমাত্র খামারের উপর নির্ভরশীল হলে চলবে না। আমি সখে ৫ বছর ধরে পাখি পালন করছি। এতদিন পাখি পালনের মধ্যে দিয়ে উপলব্ধি হয়েছে পাখিও আমার মনের কথা বুঝতে সক্ষম।

সত্যি কথা বলতে কী- পাখি আমার জীবনের আলাদা একটি অধ্যায়। নাবিলা নুর বর্ষা আরও বলেন, সমাজের অনেকে পাখি হত্যা করে। যা মোটেও ঠিক নয়।

তিনি বলেন, পাখি আমাদের চারপাশের উড়ে বেড়িয়ে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে। সুতরাং আমাদের সকলের উচিত বেশি বেশি পাখি পালন করা। পাখির খামার করে অনেকে স্বাবলম্বী হয়েছেন। এতে দেশের বেকারত্ব কিছুটা হলেও কমছে। তাছাড়া পাখিদের প্রেমে পড়ে পাখি পালন করার মধ্যে দিয়ে অনেক তরুণ-তরুণী নিজেদেরকে মাদক থেকে দূরে রাখছে। যা মাদকমুক্ত সমাজ গড়তেও সহায়তা করে।

নয়া শতাব্দী/জেআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন