ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

ড. কামালের রিট হাইকোর্টের কার্যতালিকা থেকে বাদ

প্রকাশনার সময়: ১৪ জুন ২০২২, ১৬:৫৭

কর আপিল ট্রাইব্যুনালের আদেশের বিরুদ্ধে গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটের করা রিট কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন হাইকোর্ট। তবে রিটকারীরা চাইলে অন্য কোনো বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মোহাম্মদ মাহবুব উল ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে ড. কামাল হোসেন অ্যাসোসিয়েটের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান খান ও তানিম হোসেন শাওন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল প্রতিকার চাকমা, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল তাহমিনা পলি ও ইলিন ইমন সাহা।

গত ১২ জুন এই রিটের আংশিক শুনানি শেষে বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মোহাম্মদ মাহবুব উল ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজকের (১৪ জুন) দিন ধার্য করে দেন।

এর আগে, আয়কর নিয়ে ট্যাকসেস আপিল ট্রাইব্যুনালের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন ড. কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েট। এরপর গত সপ্তাহে রিট আবেদনটি কার্য তালিকায় আসলেও রিটকারীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত মামলাটি এক সপ্তাহের জন্য মুলতবি করেন।

জানা যায়, ২০১৮-১৯ করবর্ষের জন্য ড. কামাল হোসেন তার আয়কর রিটার্ন ফাইলে বার্ষিক আয় দেখান ১ কোটি ৪ লাখ ৩ হাজার ৪৯৫ টাকা। এর বিপরীতে প্রযোজ্য ৭৬ লাখ ৪১ হাজার ৫৪৮ টাকা কর হিসেবে উৎসে কর কর্তন করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয় রিটার্ন ফাইলে।

এদিকে, ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর উপ-কর কমিশনার এক আদেশে ড. কামালের আয় ২০ কোটি ১১ লাখ ৪ হাজার ২১৯ টাকা নির্ধারণ করেন। নির্ধারিত সময়ে জমা না দেওয়ায় ৮৭ লাখ ৩৫ হাজার ৬৩৪ টাকা বিলম্ব মাশুলসহ ড. কামাল হোসেনের কাছে মোট ৬ কোটি ৯ লাখ ৮৫ হাজার ৩৫১ টাকা আয়কর দাবি করা হয়।

উপ-কর কমিশনারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ড. কামাল হোসেন কর আপিল ট্রাইব্যুনালে আপিল করেন। তবে ট্রাইব্যুনাল সেই আপিল খারিজ করে দেন। পরে ড. কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটের পক্ষে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।

নয়া শতাব্দী/এসএম

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ