ঢাকা, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বাথরুমে পড়ে আহত সম্রাট, হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশনার সময়: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:২৪

গুরুতর অসুস্থ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে বিএসএমএমইউয়ের গ্যাস্ট্রোএন্টেরোলজি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. কুতুবউদ্দিন বলেন, আজ সন্ধ্যার দিকে তিনি নিজ বাসায় বাথরুমে পড়ে যান। এরপর গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। বর্তমানে তাকে হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, তার দীর্ঘদিন থেকেই হাইপারটেনশন আছে, ডায়াবেটিসের সমস্যা আছে। আমাদের মনে হয় এসব কারণেই হঠাৎ বাথরুমে পড়ে গিয়েছিলেন। তার হার্টের কোনো সমস্যা হয়েছে কি না এটা জানার জন্যই তাকে ভর্তি করা হয়েছে। ইসিজি, ইকোসহ তাকে বেশ কয়েকটি পরীক্ষা দেওয়া হয়েছে, কাল রিপোর্ট আসলে বিস্তারিত বলা যাবে।

কুতুবউদ্দিন বলেন, পড়ে যাওয়ায় কোনো ফ্রাকচার হয়নি। আসার পরপরই এক্সরে করা হয়েছে, কোথাও কোনো জটিল আঘাত বা হাঁড় ভেঙে যাওয়ার মতো কিছু হয়নি। উনার আগে থেকেই হার্টের বাল্ব রিপ্লেসমেন্ট করা। এজন্য উনাকে নিয়ে আশঙ্কাটা বেশি। এ অবস্থায় হয়ত দুয়েকদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকা লাগতে পারে।

প্রসঙ্গত, ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান চলাকালে ২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর সম্রাটকে কুমিল্লা থেকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। এরপর তাকে যুবলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়। জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ওই বছরের ১২ নভেম্বর সম্রাটের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। ২০২০ সালের ২৬ নভেম্বর এ মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় দুদক।

চলতি বছরের ১০ এপ্রিল থেকে ১১ মের মধ্যে চার মামলায় জামিন পান সম্রাট। তবে এক সপ্তাহ পর ১৮ মে হাইকোর্ট জামিন বাতিল করে তাকে আবার বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের আদেশ দেন।

এরপর সবশেষ গত ২২ আগস্ট তাকে জামিন দেন নিম্ন আদালত। পরে গত ১১ সেপ্টেম্বর ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট সব মামলায় জামিনে কারামুক্ত হন। অসুস্থ বিবেচনায় ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করা হয়। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) তার জামিনের মেয়াদ ২০ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়িয়েছেন আদালত।

এর আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে তার মুক্তির আনুষ্ঠানিকতা সারা হয়। কারা তত্ত্বাবধায়নে রাজধানীর এই হাসপাতালেই এতদিন সম্রাট চিকিৎসাধীন ছিলেন। কারাগার থেকে মুক্তি পেলেও চিকিৎসার জন্য সম্রাট বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের ডি ব্লকের সিসিইউতে ভর্তি ছিলেন কয়েকদিন।

নয়াশতাব্দী/জেডআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ