ঢাকা, বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

গার্ডারের নিচে ৩ ঘণ্টা পড়ে ছিল মরদেহগুলো 

প্রকাশনার সময়: ১৫ আগস্ট ২০২২, ২০:৪৪

রাজধানীর উত্তরায় দুর্ঘটনার তিন ঘণ্টা পর দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া প্রাইভেটকারের ওপর থেকে সরানো হয় র‍্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের গার্ডার।

সোমবার (১৫ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টার পর গার্ডার সরিয়ে মরদেহগুলো বের করে দুটি অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয়। মরদেহগুলো শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নেয়া হবে বলে জানা গেছে।

তবে গার্ডারের নিচে প্রাইভেটকার চাপা পড়ে থাকায় মরদেহ বের করা সম্ভব হচ্ছিল না। পরে এক্সেভেটর দিয়ে গার্ডার সরিয়ে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

ফায়ার সার্ভসের ঢাকা জোন-৩ উপ সহকারী পরিচালক সাইফুজ্জামান বলেন, ১৫০ টন ওজনের গার্ডার হওয়ায় উদ্ধার কাজ শুরু করা যায়নি। পরে এক্সেভেটর আনা হয়। এক্সেভেটর আনতে দেরি হওয়ায় উদ্ধার কাজ বিলম্ব হয়। এক্সেভেটর দিয়ে গার্ডার একটু উঁচু করে প্রাইভেকারের ভেতর থেকে পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে প্রাইভেট কারের ওপর থেকে গার্ডার সরাতে এত দেরি কেন হলো, সে প্রশ্নের মুখে পড়েন ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা সাইফুজ্জামান। জবাবে তিনি বলেন, এত বড় গার্ডার সরানোর সক্ষমতা ফায়ার সার্ভিসের নেই। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান যারা এখানে কাজটি করছে, তাদের লোকজন আসার পর গার্ডারটি সরানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, প্রাইভেটকারে একই পরিবারের সাত সদস্য ছিলেন। নিহতরা হলেন- রুবেল (৬০), ফাহিমা (৪০), ঝরনা (২৮), ঝরনার দুই সন্তান জান্নাত (৬) ও জাকারিয়া (২)। ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়েছে। শুধু বেঁচে গেছেন হৃদয় ও রিয়া মনি নামের নবদম্পতি। তাদের গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ